1. admin@prothomctg.com : admin :
বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:২৯ অপরাহ্ন

চট্টগ্রামে হরতালে বিএনপির মিছিল-পিকেটিং গ্রেফতার ৯

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ২০ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ৬২ বার পঠিত

সরকার পদত্যাগ ও নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের একদফা দাবিতে বিএনপির ডাকা সকাল-সন্ধ্যা হরতালে গতকাল মঙ্গলবার নগরী থেকে দূরপাল্লার কোন বাস ছেড়ে যায়নি। স্বাভাবিকের চেয়ে যানবাহন চলাচল ছিল কম। দোকানপাট, মার্কেট, বিপনিকেন্দ্র প্রায় বন্ধ ছিল। হরতালের সমর্থনে জেলায় ব্যাপক মিছিল, মিটিং ও পিকেটিং করেছে বিএনপি। পিকেটিং থেকে নয় বিএনপি নেতাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পটিয়ার কমল মুন্সির হাটে উপজেলা যুবদল শান্তিপূর্ণ মিছিল করার সময় পুলিশের গুলিবর্ষণে দক্ষিণ ভুর্ষি ইউনিয়ন যুবদল নেতা ফরিদুল আলম বাচা, হাইদগাঁও ইউনিয়ন যুবদল নেতা টিটু ও মো. আকবর আহত হয়েছেন। হরতালের সমর্থনে নগরীর গোল পাহাড়, ও আর নিজাম রোড ও প্রবর্তক মোড় এলাকায় মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক ডা. শাহাদাত হোসেন ও সদস্য সচিব আবুল হাশেম বক্করের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল, পিকেটিং ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে ডা. শাহাদাত হোসেন বলেন, একতরফা নির্বাচন করে নির্বাচন কমিশন এখন জনগণের প্রতিপক্ষ হিসেবে দাঁড়িয়েছে। আওয়ামী সরকারের একগুঁয়েমি দেশকে এক অনিশ্চিত গন্তব্যের দিকে নিয়ে যাচ্ছে। তাদের অবৈধ রাজনৈতিক উচ্চাভিলাষ দেশে নৈরাজ্যকর পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছে। তারা নীলনকশার নির্বাচনের মাধ্যমে দেশকে বাকশালী রাষ্ট্রে পরিণত করতে চায়। কিন্তু জনগণ তাদের সে ষড়যন্ত্র বাস্তবায়ন করতে দেবে না। শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচন নিরপেক্ষ, অবাধ সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ হওয়া সম্ভব নয়। কারণ সরকারের আজ্ঞাবহ নির্বাচন কমিশন অবৈধ শেখ হাসিনাকে ক্ষমতা কুক্ষিগত করতে সিঁড়ি হিসাবে কাজ করছে। অবৈধ নির্বাচন কমিশনাররা ইসিকে আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনে পরিণত করেছে। মানুষের সাংবিধানিক অধিকারেও হস্তক্ষেপ করতে চাচ্ছে কমিশনাররা। ইসির সভা সমাবেশ বন্ধের সিদ্ধান্ত নজিরবিহীন ও গণবিরোধী।

নগর বিএনপির সদস্য সচিব আবুল হাশেম বক্কর বলেন, আওয়ামী লীগ দেশে একদলীয় নির্বাচন করে গণতন্ত্রকে ধ্বংস করেছে, আর ইসি তাতে শেষ পেরেক ঠুকতে চাচ্ছে। কিন্তু এতে কোনো লাভ হবে না। কোনোভাবেই জনগণের আন্দোলন দমানো যাবে না। অবৈধ সরকারের পতন ঠেকানো যাবে না। সরকারের মন্ত্রী এমপিরা এতো বড় বড় কথা বলেন কিন্তু সুষ্ঠু নির্বাচনের কথা শুনলে তারা আতঙ্কিত হয়ে যান। তারা রাষ্ট্র শক্তিকে ব্যবহার করছে, যাতে কেউ সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবি না জানায়। এতে উপস্থিত ছিলেন মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, আব্দুল মান্নান, আহ্বায়ক কমিটির সদস্য গাজী মো. সিরাজ উল্লাহ, মো. কামরুল ইসলাম, মহানগর যুবদলের সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক মোশারফ হোসেন, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক জিয়াউর রহমান জিয়া, যুবদলের যুগ্ম সম্পাদক সেলিম উদ্দিন রাসেল, ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক সালাউদ্দীন কাদের আসাদ, সালাউদ্দীন শাহেদ।

বহদ্দারহাট এক কিলোমিটার এলাকায় চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু সুফিয়ানের নেতৃত্বে চান্দগাঁও থানা বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মাহবুব আলম, আনোয়ার হোসেন লিপু, বিএনপি নেতা আব্দুল আজিজ, চান্দগাঁও থানা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন ভুইয়া, বিএনপি নেতা মো. জসিম উদ্দিন, চান্দগাঁও থানা যুবদলের আহ্বায়ক গোলজার হোসেন, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের দপ্তর সম্পাদক আবু বক্কর রাজু, তাছাড়া উত্তর জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক নুরুল আমিন চেয়ারম্যান, ইঞ্জিনিয়ার বেলায়েত হোসেন, সরওয়ার আলমগীর, কাজী মো. সালাউদ্দিনের নেতৃত্বে লালখান বাজার ও কাজীর দেউরী এলাকায় উত্তর জেলা বিএনপির মিছিল, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি এইচ এম রাশেদ খান ও সাধারণ সম্পাদক বেলায়েত হোসেন বুলুর নেতৃত্বে চকবাজার অলি খাঁ মসজিদ মোড় হতে প্রবর্তক মোড় এলাকায় মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। এতে অংশ নেন মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সহ-সভাপতি মামুনুর রহমান, যুগ্ম সম্পাদক জমির উদ্দীন নাহিদ, আবু বক্কর রাজু, গোলাম সরোয়ার।

মহানগর ছাত্রদলের সদস্য সচিব শরিফুল ইসলাম তুহিনের নেতৃত্বে বায়েজিদ এলাকায় মহানগর ছাত্রদলের মশাল মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। মহানগর যুবদলের সহ-সভাপতি ফজলুল হক সুমন ও শওকত খান রাজুর নেতৃত্বে পাহাড়তলী বাজার এলাকায় যুবদলের মিছিল ও পিকেটিং হয়। চবি ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম শহিদের নেতৃত্বে ওয়াসা মোড় থেকে কাজীর দেউড়ি এলাকায় মিছিল ও পিকেটিং করা হয়। মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ইসহাক খানের নেতৃত্বে রাহাত্তার পুল ও কালামিয়া বাজার এলাকায় বাকলিয়া থানা স্বেচ্ছাসেবক দলের কর্মীরা পিকেটিং করে। বায়েজিদ থানা এলাকায় স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক আলতাফ হোসেন ও সদস্য সচিব কাজী মহিউদ্দিনের নেতৃত্বে বায়েজিদ থানা স্বেচ্ছাসেবক দলের মিছিল, বায়েজিদ থানা ছাত্রদলের উদ্যোগে বায়েজিদ বোস্তামী মাজার গেইটে মিছিল, চান্দগাঁও থানা ৪নং ওয়ার্ড যুবদলের উদ্যোগে পুরাতন চান্দগাঁও থানা এলাকায় মিছিল ও পিকেটিং হয়। পটিয়া পৌরসভা বিএনপির আহ্বায়ক নুরুল ইসলাম সওদাগরের নেতৃত্বে পটিয়ায় মিছিল ও সমাবেশ করে বিএনপির কর্মীরা। জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে সাতকানিয়ায় মিছিল ও পিকেটিং হয়। জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির চট্টগ্রাম সদস্য সলিম উদ্দীন চৌধুরী খোকনের নেতৃত্বে লোহাগাড়ায় মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

Facebook Comments Box
এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০১৬ প্রথম চট্টগ্রাম। @ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য মন্ত্রণালয়ে নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
প্রযুক্তি সহায়তায় Shakil IT Park